Bangladeshi Entertainment Magazine

অর্থসংকটে বিশ্ববিদ্যালয়ের গণ্ডি পার হতে পারিনি অমিতাভ পুত্র

0 96

আইকোনিক ফোকাস ডেস্কঃ বাবার অসময়ে লেখাপড়া বন্ধ করতে হয়েছে অভিষেক বচ্চনকে। সেসময় বাবা অমিতাব বচ্চন নাকি তীব্র অর্থসংকটে পড়েছিলে, তখন অভিষেক যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুয়েটসের বোস্টন বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করতেন।

অভিষেক বচ্চন সেই কথা মনে করে বলেন, তিনি বোস্টন বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘লিবারেল আর্টস ও পারফর্মিং আর্টস’ মেজর নিয়ে পড়াশোনা শুরু করেছিলেন। কিন্তু লেখাপড়া চালিয়ে নিতে পারেননি। কারণ, বাবা অমিতাভ বচ্চন নাকি তীব্র অর্থসংকটে পড়েছিলেন।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদন অনুসারে ‘বব বিশ্বাস’ ছবির প্রচারণায় এসে এভাবেই নিজেদের পারিবারিক দুঃসময় নিয়ে অকপটে কথা বলেছেন অভিষেক বচ্চন। তিনি আরো বলেন, ‘সত্য কঠিন। সবাইকেই উঁচু-নিচু, কঠিন সময় পাড়ি দিয়েই বড় হতে হয়। আমাদেরও এমন কঠিন সময় পার করতে হয়েছে। টাকার অভাবে আমি বিশ্ববিদ্যালয়ের গণ্ডি পার হতে পারিনি। মুম্বাই, দিল্লি আর সুইজারল্যান্ডের বোর্ডিং স্কুল শেষে আমাকে উচ্চমাধ্যমিক পাসই থেকে যেতে হয়েছে।’

উপায়ান্তর না দেখে অমিতাভ বচ্চন তখন তাঁর সব জমানো অর্থ দিয়ে ‘এবিসিএল’ (অমিতাভ বচ্চন কর্পোরেশন লিমিটেড) নামে একটা ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলেন। অভিষেককে বলেছিলেন দেশে ফিরে এসে সেই ব্যবসার হাল ধরতে। কিন্তু ব্যবসাটা দাঁড়ানোর আগেই প্রচণ্ড লোকসানের মুখে পড়ে। ব্যবসাটি মাঠে মারা যায় আর সব পুঁজি শেষ হয়ে যায়। সেই সময় অমিতাভ বচ্চন সাহায্য চাইতে গিয়েছিলেন প্রযোজক যশ চোপড়ার দুয়ারে।

বাবা অমিতাভ বচ্চনের সেই সময়ের কথা জানিয়ে অভিষেক বচ্চন বলেন, ‘সত্য সত্যই। অস্বীকার করার কিছু নেই। আমার বাবা তখন বলিউডের প্রযোজক যশ চোপড়াকে গিয়ে বলেন, “আমার হাতে কোনো ছবি নেই। আমার ছবিগুলো আর হলে চলছে না। দর্শক দেখছে না। আমাকে কোনো পরিচালক ছবিতে নিচ্ছেন না। আমাকে প্লিজ একটা সিনেমা দিন। শেষবারের মতো আমি নিজের ভাগ্য পরীক্ষা করে দেখতে চাই।” পরদিন অমিতাভ বচ্চন যশ চোপড়ার ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হলেন। একের পর এক যশ রাজ ফিল্মস থেকে তাঁর অভিনীত ছবিগুলো তুমুল হিট করতে লাগল। সেই সময় বাবার ছবিগুলো হিট না করলে কী হতো, কে জানে! আমিও তখন পড়াশোনা শিকেয় তুলে সিনেমায় মন দিলাম। আমাদের বাবা-ছেলের সিনেমার আয়ে আবার পারিবারিক আর্থিক অবস্থা ঘুরে গেল।’

অভিষেক বচ্চনকে শেষবার দেখা গেছে ‘দ্য বিগ বুল’–এ। এরপর তাঁকে দেখা যাবে ‘বব বিশ্বাস’–এ। চলছে ‘দশবি’র শুটিং। অন্যদিকে অমিতাভ বচ্চন ৭৮–এ দাঁড়িয়ে ভারতের সবচেয়ে বড় মেগাস্টার। একের পর এক ছবি করে যাচ্ছেন তিনি।

বলিউডের ‘ড্রপড আউট’দের খাতায় ‘সফল অভিনেতা’ হিসেবে নাম আছে অভিষেক বচ্চনের। একই খাতায় নাম আছে আরও সফল দীপিকা পাড়ুকোনেরও।

Comments
Loading...