Bangladeshi Entertainment Magazine

আবারো শিরোনাম ফেনীর সোনাগাজী, গণধর্ষণের শিকার প্রবাসীর স্ত্রী

0 76

জহিরুল কামরুল, ফেনী প্রতিনিধি: আবারো আলোচনায় ফেনীর সোনাগাজী এবার দুই সন্তানের জননী এক প্রবাসীর স্ত্রী গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এঘটনায় বুধবার (১৭ এপ্রিল) বিকেলে নুর আলম (৩৫) নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (১৬এপ্রিল) উপজেলার চর দরবেশ ইউনিয়নের আদর্শ গ্রামের দক্ষিণ চর দরবেশ এলাকার এক বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় বুধবার (১৭এপ্রিল) সন্ধ্যায় প্রবাসীর স্ত্রী নিজে বাদী হয়ে নুর আলম (৩৫), মোঃ আপেল ও মোশারফ হোসেনসহ তিনজনকে আসামি করে সোনাগাজী মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ধর্ষণের অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

পুলিশ, স্থানীয় লোকজন ও পরিবার সূত্র জানায়, ধর্ষণের শিকার ওই গৃহবধূ আদর্শগ্রাম এলাকার এক প্রবাসির স্ত্রী ও দুই সন্তানের জননী। দীর্ঘদিন যাবত একই এলাকার নুর আলম, মোঃ আপেল ও মোশারফ হোসেন নামে তিন বখাটে যুবক তাঁকে বিভিন্ন ভাবে অনৈতিক প্রস্তাব দিয়ে উত্যক্ত করে আসছিল।

তাদের প্রস্তাবে রাজি না হলে তাঁকে অপহরন করে তুলে নিয়ে ধর্ষণ করে মেরে ফেলার হুমকি দেয় বখাটেরা। এ বিষয়টি ওই গৃহবধূ তাঁর পরিবারের সদস্যদেরকে জানায়। তাঁরা বিষয়টি সম্পর্কে বখাটেদের পরিবারকে অবহিত করে। কিন্তু এতে কোন লাভ হয়নি। এই নিয়ে স্থানীয় ভাবে শালিশী বৈঠকও হয়েছিল।

গত মঙ্গলবার রাতে প্রাকৃতিক ডাকে সাড়া দিয়ে ওই গৃহবধূ ঘর থেকে বের হলে পূর্ব থেকে ওঁৎ পেতে থাকা তিন বখাটে পেছন দিক থেকে কাপড় দিয়ে মুখ চেপে ধরে মেরে ফেলার ভয় দেখিয়ে বাড়ির পাশের নিয়ে জোরপূর্বক তাকে ইচ্ছার বিরুদ্ধে গণধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। এতে গৃহবধূ অচেতন হয়ে বাড়ির উঠানে পড়ে থাকে। কিছুক্ষণ পর তাঁর সন্তানরা হঠাৎ ঘুম থেকে ওঠে তাঁকে দেখতে না পেয়ে মা-মা করে ডাকতে থাকেন।

পরে পরিবারের লোকজন ঘরের দরজা খোলা দেখে ঘর থেকে বের হয়ে ওই গৃহবধূকে ওঠানে পড়ে থাকতে দেখে চিৎকার শুরু করে। এসময় বাড়ির লোকজন তাঁকে ঘরে নিয়ে স্থানীয় গ্রাম্য চিকিৎসক দিয়ে চিকিৎসা করায়। পরে জ্ঞান ফিরে এলে ধর্ষণের বিষয়টি পরিবারের সদস্যদেরকে অবহিত করেন।

খবর পেয়ে গতকাল সকালে আদর্শগ্রাম কেন্দ্রের পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে দুপুরে ধর্ষণের ঘটনায় জড়িত একজনকে গ্রেপ্তার করে।

গৃহবধূর পরিবারের লোকজন বখাটেদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি ও ঘটনার সুষ্ঠ বিচার দাবী করেন।

সোনাগাজীর আদর্শগ্রাম তদন্ত কেন্দ্রের পরিদর্শক (ওসি) শ্যামল চন্দ্র দাস বলেন, গ্রেপ্তারের পর জিজ্ঞাসাবাদে নুর আলম ওই গৃহবধূকে তিনজন মিলে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছে।

বৃহস্পতিবার ফেনী সদর হাসপাতালে ওই গৃহবধূর শারীরিক পরীক্ষা ও জবানবন্দি রেকর্ড করার জন্য প্রক্রিয়া চলছে।

সোনাগাজী মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ কামাল হোসেন ঘটনার সত্যতা ও ধর্ষককে গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এঘটনায় থানায় মামলা রজু করা হয়েছে। গ্রেপ্তার আসামীকে বৃহস্পতিবার আদালতে উপস্থাপন করা হবে।

Comments
Loading...