সরাইলে ইফতারে চেতনানাশক ওষুধ, অতঃপর স্বর্ণালঙ্কার লুট!

গৌতম সাহা, সরাইল (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে ইফতারে চেতনানাশক ওষুধ মিশিয়ে একই পরিবারের চারজনকে অজ্ঞান করে নগদ টাকা সহ পাঁচ লক্ষাধিক টাকার স্বর্ণালঙ্কার লুটে নিয়েছে দুষ্কৃতিকারীরা। অজ্ঞান অবস্থায় চারজনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। তারা হলেন- খোরশেদ আলম (৬৫), আসমা বেগম (২৬), সাহারা খাতুন (৬০) ও জজবানু (৪০)। চিকিৎসক জানিয়েছেন চেতনানাশক ওষুধ খাওয়ার ফলে তাদের এই অবস্থা হয়েছে। তবে এখন তারা শঙ্কা মুক্ত।

শনিবার (১১মে) সন্ধ্যায় উপজেলার কালীকচ্ছ মধ্যপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগী পরিবারের স্বজন মোঃ জাহাঙ্গীর মিয়া জানান, শনিবার ইফতারের আগমূহুর্তে বোরকা পরিহিত দুইজন নারী এ বাড়িতে এসে পরিবারের লোকদের সাথে ইফতার করার আগ্রহ প্রকাশ করেন। এসময় তাদের হাতে চারটি জুসের বোতল ছিল। তখন ওই দুই নারী জানান তারা আত্মীয়ের বাড়িতে যাচ্ছিল। পথিমধ্যে ইফতারের সময় হয়ে যাওয়ায় তারা এই বাড়িতে ঢুকে পড়েছে।

সরল বিশ্বাসে এ পরিবারের লোকজন তাদেরকে নিয়ে ইফতার করেন এবং তাদের আনা জুসও পরিবারের লোকেরা পান করেন। একসময় পরিবারের চার সদস্য অজ্ঞান হয়ে পড়লে দুস্কৃতিকারীরা ঘরের আলমারি ও বিভিন্ন ডয়ার খুলে নগদ টাকা সহ পাঁচ লক্ষাধিক টাকার স্বর্ণালঙ্কার লুটে নেয়। পরে প্রতিবেশী লোকজন এ পরিবারের সদস্যদের সাড়া শব্দ না পেয়ে রাতে বাড়িতে ঢুকে দেখেন সবাই অজ্ঞান অবস্থায় মেঝেতে ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়ে আছেন। স্বজনরা তাদেরকে অজ্ঞান অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে আসেন।

সরাইল থানার সহকারি উপ-পরিদর্শক গোপী নাথ এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, খবর পেয়ে পুলিশ রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। অজ্ঞান চারজন হাসপাতালে ভর্তি আছেন। এ ঘটনায় ভূক্তভোগী পরিবার থেকে থানায় লিখিত অভিযোগ করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *