Bangladeshi Entertainment Magazine

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ঢাকা ম্যারাথন -২০২১ শুরু হয়েছে

0 83

বাংলাদেশ সেনাবাহিনী আয়োজিত বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ঢাকা ম্যারাথন ২০২১’ শুরু হয়েছে।আজ রবিবার (১০ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে আটটায় বাংলাদেশ সেনা স্টেডিয়ামের ম্যারাথন দৌড় প্রতিযোগিতার সামনে।

দেশি-বিদেশি রানারদের অংশগ্রহণে এই ম্যারাথনটির নাম আন্তর্জাতিক ম্যারাথন অ্যাসোসিয়েশন (এইমস) এর ক্যালেন্ডারে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

সূত্র মতে, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ঢাকা ম্যারাথন ২০২১ তিনটি বিভাগে অনুষ্ঠিত হচ্ছে – ফুল ম্যারাথন, হাফ ম্যারাথন এবং ডিজিটাল ম্যারাথন। পুরো ম্যারাথন অর্থাৎ ৪২.১৯৫ কিমি দৌড় আর্মি স্টেডিয়াম থেকে ১০ জানুয়ারী সকাল সাড়ে ৮ টায় শুরু হয়ে হাতিরঝিলে শেষ হবে। এই ইভেন্টে ১০০ জন দেশি বিদেশী রানার অংশ নিচ্ছেন। একই দিনে একটি হাফ ম্যারাথন (২৪.০৯৬ কিমি) থাকবে, যেখানে কেবল ১০০ জন স্থানীয় রানাররা অংশ নেবে।

আয়োজক কমিটির চেয়ারম্যান বাংলাদেশ সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল স্টাফ লেঃ, করোনার মহামারীতে এই ইভেন্টটিকে সফল করার আহ্বান জানিয়েছেন। জেনারেল মোহাম্মদ সফিকুর রহমান। তিনি বলেছিলেন, ‘ম্যারাথনটি করোনার মহামারীতে স্বাস্থ্য সুরক্ষা বিধি মেনে মেলা আয়োজন করা হচ্ছে। কিছুটা ভয় থাকা সত্ত্বেও, অনেক বিশ্বখ্যাত রানাররা ইতিমধ্যে তাদের অংশগ্রহণের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এছাড়াও, আমাদের দেশের অনেক লোক ম্যারাথনে খুব আগ্রহী। আমি সেনাবাহিনী, বিমানবাহিনী, নৌবাহিনী, বিজিবি, পুলিশ, আনসার, বিকেএসপিসহ সকল আগ্রহী দলকে এই ম্যারাথনে অংশ নিতে অনুরোধ করছি।

ম্যারাথনের অংশীদার স্পোর্টস ভিশন লিমিটেডের চেয়ারম্যান ক্যাপ্টেন সাইফুর রহমানের মতে, কেনিয়া, মরোক্কো, রুয়ান্ডা, ভারত এবং অন্যান্য দেশের প্রায় ৫০ জন দৌড়ে অংশ নিচ্ছেন।

পূর্ণ এবং হাফ ম্যারাথন ছাড়াও রয়েছে ডিজিটাল ম্যারাথন। ম্যারাথন এভাবেই চলছে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে কবিদের পরিস্থিতিতে। মুজিব বছরে, এই ইভেন্টটি ১০ ​​জানুয়ারি থেকে মার্চ ৭ পর্যন্ত বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে অনুষ্ঠিত হবে এর জন্য আপনাকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ঢাকা ম্যারাথন ২০২১ এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে যেতে হবে এবং প্রথমে নিবন্ধন করতে হবে। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ উদযাপন, জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির প্রধান সমন্বয়ক ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী মনে করেন, “বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের দিন এই ম্যারাথন আয়োজনের মধ্য দিয়ে বিশ্ব বাঙালি জাতির আত্মত্যাগ ও বঙ্গবন্ধুর সংগ্রাম সম্পর্কে জানতে সক্ষম হবে।”

এই ম্যারাথনকে স্বীকৃতি দিয়ে আন্তর্জাতিক ম্যারাথন অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি পাকো বোরাও আশা প্রকাশ করেছিলেন, ঢাকার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ম্যারাথন ভালভাবে সম্পন্ন হবে এবং প্রতিবছর এটি অনুষ্ঠিত হবে। আমি আন্তরিকভাবে বাংলাদেশ সরকার এবং আয়োজক বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে ধন্যবাদ জানাই।

Comments
Loading...